class="post-template-default single single-post postid-4839 single-format-standard" >

(Untitled)

 

আবদুল হামিদ খান ভাসানী

 

বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

টাইমস ডেস্ক: অাজ মজলুম জননেতা মাওঃ অাব্দুল হামিদ খাঁন ভাষানীর ১৩৭তম জন্ম বার্ষিকী।তিনি বাংলাদেশের রাজনীতিতে অবিস্বংবাদিত নেতা।তিনি অাধিপাত্যবাদের বিরুদ্ধে এক সাহসী কণ্ঠস্বর।

মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী (১২ ডিসেম্বর ১৮৮০ – ১৭ নভেম্বর ১৯৭৬) ছিলেন বিংশশতকী ব্রিটিশ ভারতের অন্যতম তৃণমূলরাজনীতিবিদ ও গণআন্দোলনের নায়ক, যিনি জীবদ্দশায় ১৯৪৭-এ সৃষ্ট পাকিস্তান ও ১৯৭১-এ প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের রাজনীতিতে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। তিনিবাংলাদেশের মানুষের কাছে “মজলুম জননেতা” হিসাবে সমধিক পরিচিত। ১৯৫৪ খ্রিস্টাব্দের নির্বাচনে যুক্তফ্রন্ট গঠনকারী প্রধান নেতাদের মধ্যে তিনি অন্যতম। স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায়ও তিনি বিশিষ্ট ভূমিকা পালন করেন। রাজনৈতিক জীবনের বেশিরভাগ সময়ই তিনি মাওপন্থী কম্যুনিস্ট, তথা বামধারার রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। তাঁর অণুসারীদের অনেকে এজন্য তাঁকে “লাল মওলানা” নামেও ডাকতেন। তিনি ছিলেন একজন দূরদর্শী নেতা এবং পঞ্চাশের দশকেই নিশ্চিত হয়েছিলেন যে পাকিস্তানের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ একটি অচল রাষ্ট্রকাঠামো। ১৯৫৭ খ্রিস্টাব্দের কাগমারী সম্মেলনে তিনি পাকিস্তানের পশ্চিমা শাসকদের ‘ওয়ালাকুমুসসালাম’ বলে সর্বপ্রথম পূর্ব পাকিস্তানের বিচ্ছিন্নতার ঐতিহাসিক ঘণ্টা বাজিয়েছিলেন।

 

মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীজন্ম১২ ডিসেম্বর ১৮৮০

ধানগড়া, সিরাজগঞ্জ, বাংলাদেশমৃত্যু১৭ নভেম্বর ১৯৭৬

ঢাকা, বাংলাদেশবাসস্থানটাঙ্গাইল, বাংলাদেশঅন্য নামলাল মাওলানাপ্রতিষ্ঠানআওয়ামী মুসলিম লীগ

 

 

Facebook Comments





Related News